মঙ্গলবার, মে ২৩, ২০১৭

আমিরাতের শ্রম আইন


সেকশান ৪ - প্রোবেশন পিরিয়ড

১.প্রোবেশন পিরিয়ডের নিয়মগুলি কি কি?


প্রোবেশন পিরিয়ডের সময় হয় মালিক অথবা শ্রমিক চাকুরির চুক্তি বাতিল করতে পারে ।এবং এটি সাথে সাথে কার্যকর হবে,এ ক্ষেত্রে কোন গ্রাচুইটি বা ক্ষতিপূরন প্রদানের প্রশ্ন আসবেনা ।

এই আইনের ৩৭ ধারা অনুযায়ী প্রোবেশন পিরিয়ড সর্বোচ্চ ছয় মাসের হতে পারে ।

২.প্রোবেশন পিরিয়ড কি গ্রাচুইটি বা অন্যান্য সুবিধা প্রদানের সময়ের অন্তর্ভূক্ত হবে ?

প্রোবেশন শেষ হবার পর থেকে মালিকের সাথে শ্রমিকের সম্পর্ক শুরু হবে ।তবে প্রোবেশন পিরিয়ড কে ,গ্রাচুইটি বা অন্যান্য সুবিধা প্রদানের সময়ের অন্তর্ভূক্ত করা হবে ।

৩. মালিক কি প্রোবেশন পিরিয়ড এর সময় শ্রমিকের প্রত্যাবাসন সহ অন্যান্য সুবিধাদি প্রদানে বাধ্য থাকবে ?

প্রোবেশন পিরিয়ড এর সময় শ্রমিককে প্রত্যাবাসন সহ সকল বেতন ভাতাদি প্রদান করতে হবে ।তা না হলে কাজের চুক্তি শ্রমিকের ইচ্ছা ব্যাতীত বাতিল করা যাবেনা ।মালিককে প্রোবেশন পিরিয়ড এর সময় চাকুরির চুক্তি বাতিলকালে নোটিসের পরিবর্তে শ্রমিককে কোন গ্রাচুইটি বা ক্ষতিপূরন প্রদান করতে হবেনা

৪. প্রোবেশন পিরিয়ড কি মাফ হয়?

চুক্তির পক্ষদ্বয় চাইলে প্রোবেশন ছাড়্ওা চাকরি শুরু করতে পারে ।প্রোবেশন বাধ্যতামূলক নয় ।তবে এটি চুক্তির পক্ষের ইচ্ছার উপর সর্বোচ্চ ছয় মাস পর্যন্ত হতে পারে ।

আমরিাতরে শ্রম আইন সকেশন - ৫

মজুরি পরিশোধ:

১- আইন অনুযায়ী মজুরি কাকে বলে ?

মজুরি হলো শ্রমচুক্তি অনুসারে,শ্রমের বিনিময়ে শ্রমিককে প্রদত্ত অর্থ যেটি ক্যাশে প্রদান করা হতে পারে,শ্রম অনুযায়ী বার্ষিক মাসিক,সাপ্তাহিক,দৈনিক,ঘন্টায়,ভাগ ভাগে প্রদান করা যেতে পারে ।মজুররি মধ্যে শ্রমিকের বসবাস খরচ,বোনাস বা ইনসেনটিভ,যা শ্রম আইনে সুস্পষ্টভাবে বলে দেয়া থাকবে ।যা উক্ত কোম্পানী পূর্ব প্রথা হিসেবে চলে এসেছে ,যা কোন দান নয় ,বরং শ্রমের প্রতিদান ।

২- মজুরি আর মূল মজুররি পার্থক্য কি?

মূল মজুরি হল সেই মজুরি যেটি শ্রম চুক্তি অনুযায়ী মালিক ্ও শ্রমিকের যৌথ সমযোথায় প্রদেয় ।এর সাথে অন্যান্য ভাতাদি যুক্ত হবেনা ।বাসস্থান খরচ,যানবাহন খরচ,ভ্রমন ভাতা এর সাথে যুক্ত হবেনা ।সার্ভিস গ্রাচুইটি প্রদানের ক্ষেত্রে সর্বশেষ প্রদেয় মূল মজুরকিে হিসাব করা হবে ,সর্বমোট মজুরকিে নয় । ভাতাদি এ ক্ষেত্রে হিসাবে অন্তর্ভূক্ত হবেনা ।

৩- আইন কি সর্বনিন্ম মজুরী ধারনা কে সমর্থন করে?

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রম আইনে সর্বনিন্ম মজুরী ধারনা নেই।তবে যে শ্রমিক মাসিক ৪০০০ দিরহাম এর কম বেতন পায় সে তার স্ত্রীর জন্য বসবাস ভিসার আবেদন করতে পারে না ।এটি বরং শ্রম প্রথার একটি নিয়ম তবে আইন এ অন্তর্ভুক্ত না ।

৪- কিভাবে বেতন প্রদেয় হয় ?

শ্রম অনুযায়ী বার্ষিক মাসিক,সাপ্তাহিক,দৈনিক, মজুরি প্রদান করা যেতে পারে ।দুই পক্ষের সমঝোতায় যে কোন ভাবে অর্থাৎ আরব আমিরাতে কিংবা অন্য দেশে মজুরি প্রদান করা যেতে পারে ।

৫- কোন মুদ্রাব্যবস্থায় মজুরি প্রদান করা হবে ?

যে কোন মুদ্রাব্যবস্থায় মজুরি প্রদান করা যেতে পারে,দিরহাম বা অন্য যে কোন মুদ্রাব্যবস্থায় ।।দুই পক্ষের সমঝোতায় যে কোন ভাবে অর্থাৎ আরব আমিরাতের দিরহাম কিংবা অন্য দেশে মুদ্রাব্যবস্থায় মজুরি প্রদান করা যেতে পারে ।শ্রম আইন বা দেশে প্রচলিত কোন আইনে অণ্য দেশে মুদ্রা পাঠানোর ব্যাপারে কোন বাঁধা নেই ।

৬- আইন কি প্রদেয় মজুররি বিপরীতে সাক্ষ্য চাইতে পারে ?

যে কোন ধরনের মালিক শ্রমিক বিবাদে ,আইন কিন্তুু মালিক পক্ষ দ্বারা শ্রমিককে প্রদেয় মজুরি ্ও ভাতাদিও প্রমান চাইতে পারে।এটা লিখিত হতে পারে ।অন্যথায় সাক্ষ্য আইন মতে শ্রমিক মজুরপ্রিাপ্ত না হবার দাবি তুলতে পারে ।এ কারনে মালিক কে শ্রমিকের প্রদেয় মজুরি এর প্রমানাদি লিপিবদ্ধ রাখতে হবে ।


এই শ্রম আইনগুলি শ্রম মন্ত্রণালয় থেকে সংগৃহীত। বিস্তারিত এবং যে কোন সিদ্ধান্তের জন্য শ্রম মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ সংযোজন দেখে নিন।

https://www.guide2dubai.com/living/laws-and-regulations/labour-law

শেয়ার করুন

0 comments: