বুধবার, জুলাই ০৫, ২০১৭

কাতারের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে

কাতার সংকট সমাধানে আরব দেশগুলো ১৩টি দাবি দিয়েছিল ও সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছিল।
সময়ের মধ্যে কাতার সেসব শর্ত মেনে নেয়নি। সৌদি আরব বলছে, শর্ত না মানায় কাতারের ওপর আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। 


সৌদি ও তার মিত্রদের দেয়া শর্ত অবাস্তব ও বাস্তবায়নযোগ্য নয় : কাতার

কাতার সোমবার সৌদি আরব ও তার মিত্রদের দেয়া শর্তের জবাবে বলেছে “ শর্ত অবাস্তব ও বাস্তবায়নযোগ্য নয়”। 

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের টুইটারের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সৌদি মন্ত্রী আদেল আল জোবায়ের কুয়েতের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল সাবেহ’র কাছ থেকে দোহার সরকারী জবাব জেদ্দায় গ্রহণ করেন। কুয়েত এই সংকট নিরসনে মধ্যস্থতা করছে। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর গত ২২ জুন তাদের ১৩টি দাবি মেনে নেয়ার জন্য কাতারকে ১০ দিনের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল। রোববার তাদের পূর্ব নির্ধারিত সময়সীমা শেষ হয়। সোমবার তা আরো ৪৮ ঘন্টা বাড়ানো হয়। সোমবার ভোরে তাদের সময়সীমা বাড়িয়েছে। 

সৌদি জোটের দাবিগুলোর মধ্যে দোহাকে মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার, সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরার সম্প্রচার বন্ধ, ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস ও আমিরাতে তুরস্কের সামরিক ঘাঁটি বন্ধ অন্যতম। 

সৌদি আরব, মিসর, ইউএই এবং বাহরাইনের অভিযোগ, কাতার মুসলিম ব্রাদারহুডসহ কট্টর ইসলামপন্থী একাধিক সংগঠনকে মদদ দেয়। আল-জাজিরা টেলিভিশন চ্যানেলও এই কট্টরপন্থীদের সহযোগিতা করে। এ ছাড়া আঞ্চলিক শত্রু হিসেবে পরিচিত ইরানের সঙ্গেও দোহার সুসম্পর্ক আছে।
কাতার এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।  কাতারের জবাব গ্রহণের পর সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় টুইটে বলে, ‘যথাসময়ে কাতারের জবাব পাওয়া গেছে। ’ সৌদি ৪ জোটের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বুধবার মিসরের রাজধানী কায়রোতে পরবর্তী করনীয় নির্ধারনে বৈঠকে বসবে। কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আব্দুল রহমান আল থানী বলেছেন, “দাবিসমুহ অবাস্তব ও বাস্তবায়নযোগ্য নয়। এসব দাবি সন্ত্রাসবাদ বন্ধের জন্য বলা হচ্ছে না। এটা বাক স্বাধীনতা হরনের জন্য করা হচ্ছে।”

শেয়ার করুন

0 comments: