রবিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৭

বিপিএলে সবচেয়ে উজ্জ্বল তো মাহমুদউল্লাহই




উত্তেজনাময় ম্যাচে দল জিতেছে। হয়েছেন ম্যাচসেরা—একজন অধিনায়কের কাছে এর চেয়ে ভালো মুহূর্ত আর কী হতে পারে! কিন্তু এই সময়ে উচ্ছ্বাসের যে ছটা দেখা যায় মুখাবয়বে, মাহমুদউল্লাহর সেটি কমই দেখা গেল। বরং ‘এখানেই শেষ নয়, যেতে হবে বহু দূর’, এমন অভিব্যক্তি।

কদিন আগেও শোনা গেছে প্রশ্নটা—স্থানীয় খেলোয়াড়েরা কেন এবার বিপিএলে ভালো খেলতে পারছেন না? এ প্রশ্নের উত্তরে বারবার সামনে চলে এসেছে ৫ বিদেশি খেলার বিষয়টি। দৃশ্যটা বদলাতে শুরু করেছে ধীরে ধীরে। নিয়মিত জ্বলে উঠতে শুরু করেছেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা। বড় বড় তারকাকে ম্লান করে আলো কেড়ে নিচ্ছেন এঁরা।
আর স্থানীয় খেলোয়াড়দের মধ্যে যাঁকে সবচেয়ে উজ্জ্বল দেখাচ্ছে—মাহমুদউল্লাহ। খুলনা টাইটানসকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, ধারাবাহিক কথা বলছে তাঁর ব্যাট। আজ যেমন ৫৯ রান করে ম্যাচের নায়কই হয়ে গেলেন। দেশি-বিদেশি তারকার ভিড়ে দুর্দান্ত খেলছেন, সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ সেটির অনুভূতি জানালেন শুধু এতটুকু বলে, ‘ভালো লাগছে দলে অবদান রাখতে পারছি।’  

তবে স্থানীয় খেলোয়াড়েরা যে ভালো খেলতে শুরু করেছেন, মাহমুদউল্লাহ সেটির দারুণ এক ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন কাল, ‘আমার মনে হয় তাদের (বিদেশি) বিপক্ষে খেলতে পারাটা একটা চ্যালেঞ্জ। চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হওয়াটাই আমাদের কাজ। পাঁচ বিদেশি খেলানো এক দিক দিয়ে ভালো হচ্ছে, ভিন্ন একটা চ্যালেঞ্জ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছি।’
চ্যালেঞ্জটা যে উতরে যেতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, সেটি মাহমুদউল্লাহর পারফরম্যান্সে বোঝা যাচ্ছে। ৭ ম্যাচে ২৪৮ রান করে ব্যাটসম্যানদের তালিকায় আছেন দুইয়ে। গত বিপিএলে ১৪ ম্যাচে ৩৯৬ রান আর ১০ উইকেট নিয়ে টুর্নামেন্ট সেরা মাহমুদউল্লাহ এবারও ধরে রেখেছেন ছন্দ। 

তবে একটা চিন্তা কিন্তু মাহমুদউল্লাহর থেকেই যাচ্ছে। তিনি ছাড়া খুলনার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের বেশির ভাগেরই ধারাবাহিকতার অভাব। চিন্তাটা অবশ্য তাঁকে পিছু নিয়েছে গত বিপিএল থেকেই, ‘এটা নিয়ে আমাদের আরও কাজ করতে হবে। আমরা হয়তো সেরা সমন্বয় করতে পারছি না। টপ অর্ডার যদি আরও ভালো করে, আমাদের দল আরও শক্তিশালী হবে।’

দলের শীর্ষ ব্যাটসম্যানরা ধারাবাহিক ভালো করছেন না, তাতেই পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে খুলনা (৮ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে)। আপাতত এতেই খুশি থাকতে পারেন মাহমুদউল্লাহ! 


শেয়ার করুন

0 comments: