শনিবার, ডিসেম্বর ০৯, ২০১৭

‘ভয়াবহ হামলা’, এলোপাথাড়ি গুলিতে নিহত ১৫ শান্তিরক্ষী

সাম্প্রতিক সময়ে রাষ্ট্রসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর উপর সবথেকে ভয়াবহ হামলা সংঘটিত হল৷ ঘটনাস্থল আফ্রিকার দেশ কঙ্গো৷ এই দেশের সংলগ্ন উগান্ডা ও রুয়ান্ডার সীমান্ত এলাকায় স্থানীয় বিদ্রোহী গোষ্ঠীর এলোপাথাড়ি গুলিতে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৫ জন শান্তিরক্ষীর৷কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবর, সংঘর্ষে মারা গিয়েছেন কঙ্গোর কয়েকজন সেনাকর্মী৷হামলার খবর ছড়িয়ে পড়তেই আন্তর্জাতিক মহল আলোড়িত৷ বিবৃতিতে রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস জানান, শান্তিরক্ষী বাহিনীর উপর এটি ভয়াবহ হামলা৷বিবিসি জানাচ্ছে, কঙ্গোতেই সবচেয়ে বড় এবং ব্যয়বহুল শান্তিরক্ষা মিশন চালায় রাষ্ট্রসংঘ। সেখানে ২২ হাজারের বেশি শান্তিরক্ষী কর্মরত৷প্রবল গৃহযুদ্ধে ২০০৮ সালে রক্তাক্ত হয়েছিল কঙ্গো৷ এটি দ্বিতীয় কঙ্গো যুদ্ধ নামে কুখ্যাত৷ সেই সংঘর্ষে মৃত্যু হয় লক্ষাধিক মানুষের৷ এর পরেই কঙ্গোতে বিশাল শান্তিরক্ষী মোতায়েন করে রাষ্ট্রসংঘ৷
হামলার পিছনে আছে অ্যালায়েড ডেমোক্রেটিক ফোর্স নামের একটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী৷ পরে কঙ্গো সরকারের ও মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায় নিহত ১৫ শান্তিরক্ষী তানজানিয়ার নাগরিক৷ তবে তিনজনের জাতীয়তা উল্লেখ করা হয়নি।হামলার পরেই কঙ্গো জুড়ে জারি হয়েছে বাড়তি সতর্কতা৷ রাজধানী কিনসাসা-তে থাকা বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের সতর্ক থাকতে বলেছে সংশ্লিষ্ট দেশগুলির সরকার৷

শেয়ার করুন

0 comments: