বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৭

বিপিএলের একাদশে অধিনায়ক মাশরাফি

স্পোর্টস ডেস্কঃ সদ্য সমাপ্ত বিপিএলের সেরা একাদশ নির্বাচন করেছে ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো। যেখানে দেশি ক্রিকেটারদের ছাপিয়ে প্রাধান্য বিস্তার করছে বিদেশি প্লেয়াররা।
সাত বিদেশি খেলোয়াড়ের ভিড়ে দেশিরা মাত্র চারজন। ফলে বিপিএলে প্রতি দলে ৫ বিদেশি ক্রিকেটার খেলানোর যৌক্তিকতা হয়েছে প্রশ্নবিদ্ধ।
তবে আশার কথা হলো, নেতৃত্ব কিন্তু মাশরাফির হাতেই। যা হোক আসুন দেখে নেই ২০১৭ বিপিএল সেরা একাদশ।
ক্রিস গেইল
বিপিএলের চলতি আসরে ব্যাট হাতে সবার সেরা রংপুর রাইডার্সের ক্যারিবীয় ‘সিক্স মেশিন’ ক্রিস গেইল। ১১ ম্যাচে দুই ফিফটি ও দুই সেঞ্চুরিতে ৪৮৫ রান নিয়ে শীর্ষে তিনি। ব্যাট হাতে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৪৬ ও ১২৬ রানের দুটি ইনিংসও তার দখলে। ম্যাচ প্রতি গড় ৫৩.৮৮ রান। স্ট্রাইক রেট ১৭৬.৩৬।

এভিন লুইস
গেইলের চাইতে ৮৯ রান কমে মোট ৩৯৬ রান নিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ঢাকা ডায়নামাইটস ওপেনার এভিন লুইস। ১২ ম্যাচে তার তিনটি ফিফটি। কোনো সেঞ্চুরি নেই। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ খেলেছেন ৭৫ রানের ইনিংস। ম্যাচ প্রতি রান গড় ৩৬.০০। স্ট্রাইক রেট ১৫৯.০৩।

মোহাম্মদ মিঠুন
বিপিএলের সদ্য সমাপ্ত আসরে দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচাইতে বেশি ধারাবাহিক ছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। কিন্তু সেরা একাদশে নির্বাচিত হয়েছেন মূলত উইকেটরক্ষক হিসেবে। ১৫ ম্যাচে তার রান ৩২৯।

সিকান্দার রাজা
অলরাউন্ডার বিবেচনায় চিটাগং ভাইকিংসে ডাক পেয়েছিলেন পাক বংশোদ্ভুত  জিম্বাবুইয়ান  সিকান্দার রাজা। কিন্তু  ২৪ নভেম্বর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে খেলেছিলেন ৪৫ বলে ৯৫ রানের ঝড়ো এক ইনিংস। প্লে অফ রাউন্ডে গেইলের অপরাজিত ১২৬ রানের আগে এটিই ছিল এবারের বিপিএলের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান। ১১ ম্যাচে ১৫৩.৫৯ স্ট্রাইক রেটে ২৭৮ রান করে জিম্বাবুইয়ান তারকা জায়গা করে নিয়েছেন সেরা একাদশে।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
ব্যাট হাতে দেশি ক্রিকেটারদের ভিড়ে আলো ছড়িয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পাশাপাশি খুলনা টাইটান্সে ছিলো তার 


ছবি:বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নিপুন নেতৃত্বও। ১২ ম্যাচে ১৩০ স্ট্রাইকরেটে সংগ্রহ করেছেন ৩১২ রান। আর ‍নিপুন অধিনায়কত্বে জায়গা করে নিয়েছেন বিপিএলের শেষ চারে।
কার্লোস ব্র্যাথওয়েট
পুরো বিপিএলেই খুলনা টাইটান্সের ভরসার কেন্দ্র বিন্দুতে ছিলেন এই ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার। ১২ ম্যাচে তার সংগ্রহ ২৫০ রান। তবে ধারাবাহিক কারিশমা দেখিয়েছেন স্লগ ওভারে।
সাকিব আল হাসান
ঢাকা ডায়নামাইটস দলপতি সাকিব আল হাসান ১৩ ম্যাচে বল হাতে ঘূর্ণি সৃষ্টি করে তুলে নিয়েছেন সর্বোচ্চ ২২টি উইকেট। টুর্নামেন্টে তার সেরা বোলিং ছিল ২১ নভেম্বর রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে। ১৬ রানের বিনিময়ে তুলে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। উইকেট প্রতি তার গড় ব্যয় ১৩.২২ রান। আর ওভার প্রতি ব্যয় করেছেন ৬.৪৯ রান
সুনিল নারাইন
ব্যাটে বলে বিপিএলটা মন্দ যায়নি ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার সুনিল নারাইনের।  ১২ ম্যাচে ওভার প্রতি ৪.৯৫ গড়ে ১১ উইকেট নিয়েছেন ক্যারিবীয় তারকা। সমান সংখ্যক ম্যাচে করেছেন ২০০ রান।
মাশরাফি বিন মর্তুজা
বিপিএল শিরোপা মানেই যেন মাশরাফি। ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে প্রথম দুই আসরে শিরোপা জয়ের পর এক বছর বিপিএল বন্ধ থাকলেও পরের আসরেই নবাগত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিয়ে উঁচিয়ে ধরেন তৃতীয় বিপিএল শিরোপা। চতুর্তটি এসেছে গতকাল ঢাকার বিপক্ষে। সেই মাশরাফির হাতেই নেতৃত্ব তুলে দিতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করছে ক্রিকইনফো। কম যাননি বল হাতেও। ১৪ ম্যাচে নিয়েছেন ১৫ উইকেট।
হাসান আলী
টুর্নামেন্টের তৃতীয় সেরা উইকেট শিকারি হয়েছেন 


ছবি:বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পাকিস্তানি পেসার হাসান আলী। ৯ ম্যাচে তার উইকেট সংখ্যা ১৬টি। সেরা বোলিং ইনিংসটি ছিল ২০ নভেম্বর ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে। ওই ম্যাচে ২০ রানের বিনিময়ে তুলে নিয়েছিলেন ৫ টি উইকেট। উইকেট প্রতি তার গড় ব্যয় ১৫.৩১ রান। আর ওভার প্রতি ব্যয় করেছেন ৭.০৩ রান।
রশিদ খান
বিপিএলের শেষ পর্যন্ত খেলা হয়নি আফগান লেগ স্পিনার রশিদ খানের। তবে যে কটি সুযোগ পেয়েছেন পুরোটাই কাজে লাগিয়েছেন। ৭ ম্যাচে তার উইকেট  ৬টি। ওভার প্রতি মাত্র ৪.৪৬ রান দিয়ে পেয়েছেন ‘কিপ্টে’ বোলারের তকমা।দ্বাদশ খেলোয়াড় হিসেবে জায়গা পেয়েছেন চিটাগং ভাইকিংসের লুক রঞ্চি। সেরা কোচ রংপুর রাইডার্সের টম মুডি।


শেয়ার করুন

0 comments: