বুধবার, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৭

ডোপিংয়ের অভিযোগে ২০১৮ সালের শীতকালীন অলিম্পিকে নিষিদ্ধ রাশিয়া

রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ডোপিংয়ের অভিযোগে ২০১৮ সালের শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। মঙ্গলবার আইওসির একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে যেসব রুশ অ্যাথলেটের বিপক্ষে ডোপিংয়ের কোন অভিযোগ নেই তারা নিরপেক্ষ হিসেবে অলিম্পিকের পতাকা নিয়ে এই গেমসে অংশ নিতে পারবেন।
দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচেংয়ে অনুষ্ঠেয় গেমসের ৬৫ দিন আগে ড্রাগ প্রতারণার অভিযোগে রাশিয়ার বিপক্ষে এই কঠিনতম সিদ্ধান্তটি নিতে সক্ষম হয়েছে আইওসি। এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে আইওসির সভাপতি থমাস বাখ এই বলে রাশিয়াকে অভিযুক্ত করেন যে, দেশটি অলিম্পিক গেমসের এবং ক্রীড়ার শুদ্ধতার ওপর হামলা করেছে।
ওয়ার্ল্ড এন্টি-ডোপিং এজেন্সি (ওয়াডা) এবং আইওসির দুটি তদন্তেই রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ড্রাগ প্রতারণার দায়ে রাশিয়াকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। বিশেষ প্রক্রিয়ায় শক্তিবর্ধক ওষুধ গ্রহণ করে রুশ অ্যাথলেটরা ২০১৪ সালে সোচিতে অনুষ্ঠিত শীতকালীন অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিল বলে উভয় তদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।
রিপোর্টে বলা হয়, ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে রাষ্ট্রের গোপন এজেন্টের মাধ্যমে এই ডোপ কর্মকান্ডের সঙ্গে সরকারের অনেক শীর্ষ কর্মকর্তা জড়িত ছিলো। একই সঙ্গে সোচি গেম চলাকালে ক্রীড়া মন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী রাশিয়ার বর্তমান উপ-প্রধানমন্ত্রী ভিটালি মুটকোকেও আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইওসি। যিনি বর্তমানে ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজক কমিটির প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন।
এদিকে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত মুটোকো বিশ্বকাপ চলাকালে সিনিয়র কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন অব্যাহত রাখতে পারবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। এক বিজ্ঞপ্তিতে ফিফা জানায়, ‘আইওসির নেয়া এই সিদ্ধান্তে ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপ আয়োজনের প্রস্তুতিতে প্রভাব পড়বে না।’
রাশিয়ার অলিম্পিক কমিটি (আরওসি) ও এর প্রধান আলেকজান্ডার জুকভকেও নিষিদ্ধ করেছে আইওসি। প্রতিক্রিয়ায় জুকভ বলেছেন, ডোপিং আইন ভঙ্গের দায়ে তিনি মঙ্গলবার আইওসির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তার দেশ আইন মেনে চলার বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

শেয়ার করুন

0 comments: