সোমবার, জুলাই ৩০, ২০১৮

তিন সিটিতে নির্বাচন বর্জন করল ইসলামী আন্দোলন

কেন্দ্র দখল ও অন্যান্য অনিয়মের বিভিন্ন অভিযোগে তিন সিটির নির্বাচন বর্জন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। আজ সোমবার বেলা তিনটার দিকে এই রাজনৈতিক দলটি তিন সিটিতে নির্বাচন বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব গাজী আতাউর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘খুলনা-গাজীপুরের চেয়েও জঘন্য নির্বাচন হয়েছে। বরিশালে সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থা ছিল।’ তিনি আরও বলেন, সিলেটে অন্তত ৭০টি কেন্দ্রে অনিয়ম হয়েছে। জাল ভোট, জোর করে নৌকা প্রতীকে সিল মারাসহ এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেন গাজী আতাউর রহমান।

আজ সোমবার রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি করপোরেশনে সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত চলে টানা ভোট গ্রহণ। তিন সিটিতে একজন মেয়র, একজন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও একজন করে সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেছে নিতে ভোটাররা ভোট দিয়েছেন। তিন সিটিতে মোট ১৪টি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে এই তিন সিটির নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে আশা করেছিল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। দলের যুগ্ম মহাসচিব গাজী আতাউর প্রথম আলোকে বলেন, এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হবে না। এই তিন সিটির নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচন করার দাবি জানান তাঁরা।

তিন সিটি করপোরেশনে মোট ভোটার প্রায় নয় লাখ। প্রাথমিক হিসেবে ৬০ শতাংশের বেশি ভোট পড়তে পারে বলে মনে করছে নির্বাচন কমিশন।

কিছুদিন আগে হওয়া গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফলাফলে ইসলামী আন্দোলনের অবস্থান ছিল তৃতীয়। খুলনা সিটির নির্বাচনে প্রথমবার অংশ নিয়ে দলটি পায় তৃতীয় সর্বোচ্চ ভোট। এর আগে ২০১৫ সালে ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পরেই ছিল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন

0 comments: