শনিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২০

করোনা পরিস্থিতিতেও ট্রাম্পের একনায়কত্ব বহাল: তীব্র সমালোচনা ইউরোপের

বিশ্বের দেশগুলো বহুপাক্ষিক সহযোগিতা গড়ে তোলা, সব দেশের সঙ্গে পারস্পরিক সম্পর্কের উন্নয়ন এবং বিরাজমান নানা সংকট মোকাবেলার জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্টার ওপর জোর দিলেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার একনায়কত্ব ও স্বেচ্ছাচারী নীতি অব্যাহত রেখেছেন।  
সারা বিশ্ব যখন করোনাভাইরাসে জর্জরিত এবং এ ভাইরাস মোকাবেলায় সব দেশের সহযোগিতা প্রয়োজন তখনও আমেরিকা তার নীতিতে অটল রয়েছে।
এ ব্যাপারে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল কয়েকটি দেশের স্বেচ্ছাচারী নীতির তীব্র সমালোচনা করে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্বের সব দেশের মধ্যে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন।  
তিনি সরাসরি মার্কিন নীতির সমালোচনা করে বলেছেন, ‘করোনার মতো প্রাণঘাতী ভাইরাস মোকাবেলার একমাত্র উপায় হচ্ছে একক আধিপত্যের শৃঙ্খল থেকে বেরিয়ে আসা।
কেননা কোনো দেশের একার পক্ষে এ ভাইরাস মোকাবেলা করা সম্ভব নয় এবং এ ভাইরাস কোনো সীমানা চেনে না। ‘
এদিকে, মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাবেক কর্মকর্তা মাইকেল মাআলোফ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নীতির সমালোচনা করে বলেছেন, ‘বর্তমান বিশ্ব কয়েক মেরুতে পরিণত হয়েছে এবং মার্কিন সরকারের উচিত এ বাস্তবতা মেনে নেয়া’।
গত কয়েক মাসে সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ায় এ ভাইরাসের ফলে বিশ্বজুড়ে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকট কাটিয়ে ওঠার জন্য বিশ্বের সব দেশের মধ্যে সহযোগিতার প্রয়োজনীয়তা আগের চেয়ে বহগুণে বেড়েছে।
জাতিসংঘ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তারাও আসন্ন বিপর্যয় মোকাবেলার জন্য আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে করোনা পরিস্থিতি বিষয়ক জরুরি বৈঠকে একটি প্রস্তাব পাশ হয়েছে যেখানে এ ভাইরাস মোকাবেলায় বহুপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানানো হয়েছে।   
কিন্তু এ আহ্বান সত্ত্বেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্বেচ্ছাচারী নীতিতে অটল থেকে বিশ্বকে সংকটের মধ্যে ঠেলে দিয়েছেন। তিনি তার ভাষায় করোনা ইস্যুতে চীনের কার্যক্রমকে গোপন রাখতে সহযোগিতা করার দায়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে অভিযুক্ত করে এ সংস্থাকে দেয়া আর্থিক সাহায্য বন্ধ করে দিয়েছেন।  
ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যাঁ লুদ্রিয়ান মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করে বলেছেন, এতে করে বহুপাক্ষিক সহযোগিতার পরিবেশ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দুর্বল হয়ে পড়বে।
করোনা পরবর্তীতে অর্থনৈতিক মন্দা কিভাবে কাটিয়ে ওঠা যায় সেটাই এখন সারা বিশ্বের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেক বিশেষজ্ঞ করোনা পরবর্তী সময়কে নয়া রাজনৈতিক ও বিশ্ব ব্যবস্থার সূচনা হিসেবে দেখছেন। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট এখনো স্বেচ্ছাচারিতা প্রদর্শনের মাধ্যমে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব ও শক্তির প্রমাণ দেয়ার চেষ্টা করছেন। এ অবস্থা চলতে থাকলে আমেরিকা বিশ্ব অঙ্গন থেকে ছিটকে পড়তে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

শেয়ার করুন

0 comments: